DIGITAL

September 30, 2022

APTCE 18538973148

কাছাড় কংগ্রেসের অস্তিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন প্রবীন কংগ্রেস কর্মী গন

 নিজস্ব সংবাদদাতা 6 ই জানুয়ারি শিলচর—— একদা কাছাড় কংগ্রেসের যে অবস্থান ছিলো বর্তমানে সেই জমজমাট অবস্থান বিলোপ হতে চলেছে বলে প্রশ্ন তুলেছেন প্রবীন কংগ্রেস কর্মী গন ।বর্তমানে হাতে গোনা কয়েকজন কংগ্রেস কর্মীদের আনাগোনা ছাড়া বাকি সবাই আর পা মারা তে দেখা যায় নি ।

                         বিগত এক দশকে শিলচর জেলা কংগ্রেসে পোড় খাওয়া নেতা কর্মীদের তৎপরতা নেই বললেই চলে । জেলা কংগ্রেস সভাপতি হিসেবে কর্নে ন্দু ভট্টাচার্য কে সরানোর পর একতরফা ভাবে প্রদীপ দে কে জেলা কংগ্রেসের সভাপতি পদে আসীন করাটা কত যে ভুল হয়েছে আজ সেটা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কিছু নেতা প্রকাশ্যে মত ব্যক্ত করেছেন ।তাদের মতে কাছাড় জেলার সাতটি সমষ্টি র যে সব কংগ্রেস কর্মী দলের সুখে দুঃখে সাথে ছিলেন আজ তাদেরকে  অপয়া হিসেবে রেখে দেওয়া হয়েছে ।এক সময় যাদেরকে নিয়ে কাছাড় কংগ্রেসের নীতি নির্ধারণ করা হতো আজ তাদেরকে পাত্তা দেওয়ার প্রয়োজন মনে না করাটাই কাছাড় কংগ্রেসের কাল হয়েছে বলে রাজনৈতিক মহল মনে করেন ।একদা কিশোর ভট্টাচার্য  , কমলে ন্দু ভট্টাচার্য , মিস বাবুল ইসলাম লস্কর সহ যে সব সর্ব জন গ্রাহ্য কংগ্রেস নেতা ছিলেন তাদেরকে কে সরিয়ে রেখেছেন তা নিয়ে আত্ম সমালোচনা আবশ্যক বলে সাত সমষ্টি র তৃণমূল স্তরের কংগ্রেস কর্মী গন দাবি করছেন বলে খবর পাওয়া গেছে ।

                     এদিকে একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ঢাকে কাটি পড়েছে কিন্তু যেভাবে জেলা কংগ্রেসের তৎপরতা শুরু হতো সেটা পরিলক্ষিত হচ্ছে না ।প্রতিটি শাখা সংগঠন ও  পঞ্চায়েত এলাকায় সক্রিয় নয় বললেই চলে এমতাবস্থায় আগামী বিধানসভা নির্বাচনে দলের অবস্থান যে নড়বড়ে হবে সেটা আগাম টের পাওয়া যাচ্ছে ।কেন কাছাড় কংগ্রেসের এমনতর অবস্থা হলো তা নিয়ে দলের অভ্যন্তরে প্রবেশ করতে হবে বলে কংগ্রেসের একনিষ্ঠ কর্মী ও সমর্থক দাবি তুলেছেন ,  অন্যথায় আগামী দিনে কংগ্রেসের  নাম মুছে যাবে বলে রাজনৈতিক মহলের ধারণা ।