DIGITAL

October 4, 2022

APTCE 18538973148

স্থানীয় প্রার্থী র দাবিতে সরব হয়েছেন বড় খলা এলাকার বিশিষ্ট কংগ্রেস কর্মী গন

 নিজস্ব সংবাদদাতা বড় খলা 2 রা ফেব্রুয়ারি– বরাক উপত্যকার প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে স্থানীয় প্রার্থীর দাবিতে  সরব হয়েছেন প্রতিটি রাজনৈতিক দলের নেতা কর্র্মীরা , বসে নেই বড় খলা সমষ্টি র কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা গত 30 শে জানুয়ারি শাল চাপ রা উন্নয়ন খণ্ডের অধীন বালি ঘাটে আনুষ্ঠানিক ভাবে  কংগ্রেসের এক চিন্তন সভার আয়োজন করা হয় ।

                   নিজ জয় নগর কুমার পাড়া পঞ্চায়েতের আঞ্চলিক পঞ্চায়েত সদস্য তারেক লস্করের বাড়িতে ঐ চিন্তন সভা অনুষ্ঠিত হয় । সভায় পৌরোহিত্য করেন একসময়ের বিশিষ্ট কংগ্রেস নেতা ফয় জুল হক মজুমদার মহাশয় ।এখানে উল্লেখ্য যে বড় খলা সমষ্টি র নামকরা প্রবীন কংগ্রেস নেতা গন বর্তমান সময়ে দলের কাছে বোঝা হয়ে গেছেন তাই তাদেরকে দলীয় সভা সমিতিতে দেখা যায় না । কিন্তু সেদিনের সভায় সেইসব নেতা কর্মীদের উপস্থিতি 2021 এর নির্বাচনের পূর্বে একজোট হয়ে  পড়ার ঘটনা এক বিশেষ ইঙ্গিত বহন করছে বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষ ক গন  মনে করছেন ।ভীড়ে ঠাসা কনকনে শীত উপেক্ষা করে রাত দশটা অবধি এই সভা চলে ।সভায় উপস্থিত বিশিষ্ট ব্যক্তি গণ একে একে  আগামী নির্বাচনে কংগ্রেসের টিকিট স্থানীয় প্রার্থী কে যেন প্রদান করা হয় তা নিয়ে ঐ দিনের সভায় বিশদ আলোচনা করা হয় । কিন্তু কোন  সঠিক  সিদ্ধান্তে  পৌঁছানো সম্ভব হয় নি , বিভিন্ন বক্তা তাদের নিজ নিজ অবস্থানে থেকে পছন্দের প্রার্থী নিয়ে  জোরদার আলোচনা করতে দেখা গেছে কিন্তু স্থানীয়  বলতে কি বুঝাতে চেয়েছেন সেটা খোলাসা করা হয় নি ।সেদিনের সভায় সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে বিভিন্ন বক্তা বারবার পা পণ দেবের নাম উল্লেখ করে  কেউ বা হেলি ম উদ্দিন বড় ভূঁইয়া কে আবার কেউ বা মিস বাবুল ইসলাম লস্কর কে কংগ্রেসের টিকিট প্রদান করার  মতো মনোভাবের পরিচয় দিয়েছেন ।অন্যদিকে অনেকেই সংখ্যালঘু প্রার্থী র পক্ষে মত প্রকাশ করেছেন , কিন্তু সাধারণত সংখ্যালঘু বলতে অনেকেই ভাবছেন যে শুধু মাত্র মুসলিম রা সংখ্যালঘু  কিন্তু  এটা সম্পূর্ণ ভূল ধারণা । 

                সূত্রের দাবি সেদিনের সভায় উপস্থিত আমন্ত্রিত গন অধিকাংশই হেলি ম উদ্দিন বড় ভূঁইয়া র পক্ষে যে ছিলেন তা প্রকাশ পেয়েছে । এই প্রতিবেদক ভাবছিলেন যেহেতু  বালি ঘাটে এই চিন্ত ন সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে নিশ্চয়ই মিস বাবুল ইসলাম লস্কর মহাশয়ের অনুকূলে হবে , কিন্তু যখনই জানতে পারলেন যে  আজকের এই বিশেষ সভা যার বাড়িতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে তিনি আগাগোড়া মিস বাবুল বিরোধী তাই হেলি ম উদ্দিন বড় ভূঁইয়া র পক্ষে জোরালো যুক্তি তুলে ধরা হয়েছে ।

                  এখানে উল্লেখ্য করা আবশ্যক পূর্বে ও স্থানীয় প্রার্থী নিয়ে অনেক দাবি উঠেছিল কিন্তু শেষ মুহূর্তে হাই কমান্ড ই প্রার্থী যাকে উপযুক্ত বলে মনে করে তাকে মনোনয়ন প্রদান করে । ভারতের প্রতিটি জাতীয় স্তরের রাজনৈতিক দলের  এই একটা সিদ্ধান্ত , অতএব তৃণমূল স্তরের কর্মীদের মতামতের ও গুরুত্ব প্রদান  যে করা হয় না তা নয় ।প্রতিটি রাজনৈতিক দল সরকারি বেসরকারি গোয়েন্দা  সূত্রের উপর নির্ভর করে প্রার্থী মনোনয়ন করে ।গত দিনের সেই চিন্ত ন সভা অনেকের কাছে চিন্তার কারন যে হয়ে গেছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না ।