DIGITAL

December 6, 2022

APTCE 18538973148

পূর্ব বড় খলাতে কংগ্রেসের অবস্থান মজবুত পর্যায়ে চলে গেছে আজ –অভিমত

নিজস্ব সংবাদদাতা বড় খলা 26 শে মার্চ— হাতে গোনা পাঁচ দিন আগে বিজেপির নড়বড়ে প্রচার কে হাতিয়ার করে আজ বড় খলার বিজেপি দলের শক্ত ঘাঁটি বলে পরিচিত  পূর্ব বড় খলার চার চারটি পঞ্চায়েত এলাকায় মহাজোটের প্রার্থী মিস বাহুল্ ইসলামের একটানা নির্বাচনী প্রচার সভা চোখে পড়ার মতো। এখানে উল্লেখ্য যে এই চারটি পঞ্চায়েত এলাকার ভোটার গন বিজেপির একমাত্র ভরসা ।বিগত বিধানসভা সভা নির্বাচনে এই এলাকার মানুষ নির্ণায়ক ভূমিকা পালন করেছে ।

এখানে উল্লেখ্য যে এই চার পঞ্চায়েত এলাকায় প্রাক্তন বিধায়ক ডাঃ রুমী নাথের সমর্থকেরা একুশের বিধানসভা নির্বাচনে এক উল্লেখ যোগ্য ভূমিকা যে গ্রহন করবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না , স্বভাবতই রুমি নাথ যখন ময়দানে নেই তখন তার অনুগামী গন তো বসে থাকতে পারেন না ,, আর তাদের কে যেমন কংগ্রেস ও বিশ্বাস করছে না অনুরূপ বিজেপি ও তাদেরকে নিয়ে মাথা ঘামানোর চেষ্টা করছে না , ঠিক সেই সময় তাদের হাই কমান্ড অঙ্ক কষে তাদেরকে কংগ্রেস দলে সমর্থন জোগাতে নির্দেশ দেন ।

তাই রুমী কংগ্রেস বলে খ্যাত  পূর্ব  বড় খলার কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা আজ দিনভর কংগ্রেস প্রার্থী মিস বাহুল্  ইসলামের সমর্থনে বেশ কটি সভা শেষ করে ঐক্যবদ্ধ হতে বড় খলার বিশিষ্ট কংগ্রেস নেতা দিলীপ কর মহাশয়ের বাসভবনে এক ঘরোয়া পরিবেশে মিলিত হন ।কে নেই সেই সভায় , সেখানে আগে থেকেই উপস্থিত ছিলেন রুমী ঘনিষ্ঠ প্রবীন কংগ্রেস নেতা তথা সংগঠক নিরঞ্জন রায় মহাশয় , একে একে  পূর্ব বড়  খলা জেলা পরিষদ এলাকার ভোট কারিগর বিকাশ দাস,  স্বপন শুক্ল বৈদ্য, রতন মালাকার,  আনন্দ ঘোষ , মিহির দাস চৌধুরী, দীপক দাস, কৃষ্ণা কর্মকার, শাস্ত্রী জী সহ চা বাগানের যুবক সহ মণিপুরী সমাজের যুবক গন ।আজকের এই ঘরোয়া সভা একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকবে বলে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন ।এই সভায় উপস্থিত বিশিষ্ট ব্যক্তি নিরঞ্জন রায় তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন যে দীর্ঘ তিন তিনটি নির্বাচনে যিনি র বিরোধিতা করেছেন তাকে কোনো দিন সরাসরি দেখেন নি , আজ রাজনীতির ময়দান থেকে বিদায় নেওয়ার প্রাক্কালে কংগ্রেস প্রার্থী মিস বাহুল্ ইসলাম লস্করের সাথে করমর্দন করে বলেন যে এবারের নির্বাচনে তার জয় অনিবার্য , রায় বাবু কংগ্রেস প্রার্থী কে আগাম শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন যে  পূর্ব বড় খলাতে আজ কংগ্রেস দলের ভীত মজবুত হলো । আজকের এই ঐতিহাসিক মিলনের অনুঘটক দিলীপ কর উপস্থিত কর্মী সমর্থকদের কাজে ঝাঁপিয়ে পড়তে অনুরোধ জানান ।