DIGITAL

December 6, 2022

APTCE 18538973148

বড় খলার মহাজোটের প্রার্থী মিস বাহুল্ ইসলামের নৃত্য দেখে বিজেপি মুচকি হাসে -চর্চা

বিশেষ রাজনৈতিক প্রতিবেদন 31 শে মার্চ—— আর মাত্র বারো ঘন্টা , জনতা জনার্দন তাদের মহা মূল্যবান ভোট দিয়ে আগামী পাঁচ বছরের জন্য জনপ্রতি নিধি নির্বাচন করতে চলেছেন ।এবারের বড় খলা বিধানসভা নির্বাচনের গুরুত্ব অপরিসীম । সংখ্যালঘু আসন বলে কথিত বড় খলা বিধানসভা সমষ্টি দীর্ঘ পনেরো বছর ধরে হাতছাড়া , তাই  বড় খলার বিশিষ্ট সংখ্যালঘু নেতৃত্ব ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের দরবারে কৌশলে তাদের দাবি এমনভাবে উপস্থাপন  করেছিলেন যে বড় খলা সমষ্টি তে সংখ্যালঘু  প্রার্থী চাই ই , দল  উজ্জ্বল ভাব মূর্তি সম্পন্ন এমন একজন সংখ্যালঘু প্রার্থী বাছাই করলো যার কিনা বিরাট সংখ্যক সংখ্যা গুরু জনসাধারণের কাছে গ্রহন যোগ্যতা আছে ।এখানে উল্লেখ্য যে বিগত বিধানসভা সভা নির্বাচনে নির্দল প্রার্থী হিসেবে অংশ নিয়ে মাত্র বিয়াল্লিশ ভোটে পরাজিত হয়েছিলেন , এই ব্যাক্তি কে উপযুক্ত হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করে মনোনয়ন প্রদান করার পর  সর্বত্র  একটা আওয়াজ উঠেছিল   এবার খেলা হবে—–

এবারের বড় খলা বিধানসভা কেন্দ্রে তৃতীয় কোন শক্তিশালী  প্রার্থী না থাকায় সরাসরি কংগ্রেস বিজেপি দলের মধ্যে যে ওয়ান ডে ম্যাচ হবে সেটা পাকা হয়ে গেছে । সবাই প্রথম থেকেই বলে আসছেন এবার বড় খলাতে মেরুকরণের ভোট হবে , সংখ্যালঘু সংখ্যাগুরু পৃথক পৃথক ভাবে খেলতে চাইবে , কিন্তু নির্বাচনের চার দিন আগে হঠাৎ সাত আসমান থেকে এমন নির্দেশ আসলো যেটি কিনা সব সমীকরণ পাল্টে দিলো । বিগত পনেরো বছর ধরে এই বিধানসভা কেন্দ্রের পূর্ব জেলা পরিষদ এলাকার ভোটার গন নির্ণায়ক ভূমিকা পালন করে আসছেন , কিন্তু হঠাৎ করে এমন কি ঘটলো যার  পরিণতিতে গতকাল এই এলাকার ভোটার ও মহাজোটের প্রার্থী আনন্দে মেতে উঠলেন । সত্যি বলতে কি ধর্ম নিরপেক্ষ কংগ্রেস দলের প্রার্থী যে ভাবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে  নৃত্য পরিবেশন করলেন তা রীতিমতো  অবাক করার মত। অনেকেই বলেছেন এই নৃত্যের তালে আছে আগাম বিজয়ীর দৃঢ়তা ।

কথায় আছে চিত্ত সুখে গীত গায় , আর আনন্দে নৃত্য করে— যেভাবে সংখ্যা গুরু এলাকায় সমর্থন পাচ্ছেন কংগ্রেস প্রার্থী মিস বাহুল্ ইসলাম লস্কর তা দেখে বিস্মিত বিরোধী দলের নেতা কর্মী, গতকালের কংগ্রেস দলের নৃত্য দেখে বিরোধী দল মুচকি হাসছে , সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী 2 রা মে মহাজোটের প্রার্থী মিস বাহুল্ ইসলাম লস্কর যে শেষ হাসিটা যে হাসবেন তা নিশ্চিত বলে অনুমান করছেন রাজনৈতিক মহল ।