DIGITAL

October 4, 2022

APTCE 18538973148

মার্চ মাসের খাদ্য সুরক্ষার চাউল নিয়ে খেলি মেলির অভিযোগ উঠেছে , উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত দাবি করেছেন সচেতন মহল

বিশেষ প্রতিবেদন 21 শে এপ্রিল শিলচর—- মার্চ মাস হিসাব নিকাশের মাস , আর এই মাসের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে সব কিছু । বরাক উপত্যকা তে দীর্ঘ  দিন ধরে একটা কথা প্রচলিত আছে যে প্রতি বছর গাও পঞ্চায়েত ভিত্তিক সমবায় সমিতি গুলিতে একটা বরাদ্দ কৃত চাউল গায়েব হয়ে যায় ।কিন্তু হাতে নাতে ধরতে পারা যায় না বলে  অভিযোগ গুলো ও গায়েব হয়ে যায় ।বিশাল ব্যাপার বিশাল বিশাল মাথা জড়িত থাকে তাই কোন রহস্য উন্মোচন হয় না ।

এবার বোধহয় করোনা সংক্রমণের ফলে দীর্ঘদিন ধরে চলা সেই গায়েবী মাল উদ্ধার হতে পারে এমনটাই মনে করছেন সচেতন মহল ।সংবাদে প্রকাশ কাঠিগড়া রাজস্ব চক্রের বিক্রমপুর সমবায় সমিতির মার্চ মাসের খাদ্য সুরক্ষা  কার্ডের গ্রাহকদের বরাদ্দ কৃত চাউল যথাসময়ে না আসায় স্থানীয় বাসিন্দারা জোরদার চর্চা শুরু করেন । অবশেষে এই সমবায় সমিতির বরাদ্দ কৃত চাউল গুদামে আসে ,  এমনিতেই প্রতিটি সমবায় সমিতির ডিলার গন কার্ড প্রতি এক কেজি করে চাল কেটে নেয় । গ্রাহক গন ও  এমন একটা আপত্তি করেন না । এবারের মার্চ মাসের বরাদ্দকৃত চাউল মাথা পিছু   আট শত গ্রাম  আগেই কেটে নেওয়া হয় তার উপর সেই এক কেজি চাল তো আছেই । এসব খবর চাউর হতেই স্থানীয় বিশিষ্ট ব্যক্তি গন সমাজের গরীব মানুষের স্বার্থে  এই সমিতির সম্পাদক কে  মাথা পিছু আট শত গ্রাম  করে কম দিলে মোট দুই শত আঠারো কুইন্টাল চাল হয় সে বিষয়ে জানতে চাইলে সমিতির সম্পাদক বলেন যে  ভারতীয় খাদ্য নিগমের শিলচর বিভাগের ওজন পরিমাপক যন্ত্রের গোল যোগের জন্য এই চাউল কম এসেছে , আগামী দিনে সেটা আসলেই গ্রাহকদের মধ্যে বিতরণ করে দেওয়া হবে ।

সম্পাদক মহাশয়ের এই আজগুবি জবাবে সচেতন মহলের কাছে সন্দেহ টেকে যায় , তারা সংবাদ মাধ্যম  মারফত বিষয় টি  জেলা প্রশাসনের নজরে আনেন ।এখানে উল্লেখ্য যে  ভারতীয় খাদ্য নিগমের মতো একটা সংস্থার  ওজন পরিমাপক যন্ত্রের গোল যোগের  জন্য  শুধু কি একটা সমিতিতে চাউল কম আসলো কি?   এভাবেই প্রশ্ন বান নিক্ষেপ করতে শুরু  করেছেন  বিশিষ্ট ব্যক্তি বর্গ গন ।  স্বভাবতই প্রশ্ন জাগে তাহলে  কি এই অজুহাতে সমগ্র কাছাড় জেলার প্রতিটি সমবায়  সমিতি গুলিতে হাই টেক পদ্ধতি ব্যবহার করে  কেলেঙ্কারি সংগঠিত করা হয়েছে । এই বিষয়ে ভারতীয় খাদ্য নিগমের রাজ্য স্তরের পরামর্শ দাতা কমিটির সদস্য বিশিষ্ট সাংবাদিক হারান দে মহাশয়ের গোচরে আনলে তিনি নড়েচড়ে বসেন, তিনি ভারতীয় খাদ্য নিগমের  শিলচর বিভাগের  আধিকারিক কে এক পত্রে কাঠিগড়া ও বড় খলা  বিধানসভা কেন্দ্রের প্রতিটি সমবায় সমিতির মার্চ মাসের খাদ্য সুরক্ষা কার্ডের বরাদ্দকৃত  তালিকা চেয়ে পাঠিয়েছেন বলে এই প্রতিবেদক কে জানিয়েছেন ।