DIGITAL

February 5, 2023

APTCE 18538973148

প্রধান মন্ত্রীর অন্ন যোজনা র চাউল নিয়ে ব্যাপক খেলি মেলির অভিযোগ

শিলচর থেকে  বিশ্ব জিত দাসের প্রতিবেদন 6 ই জুন—- কারো পৌষ মাস আর কারো সর্বনাশ , এই করোনা সংক্রমণের সুযোগ কে হাতিয়ার করে একাংশ লোক রাতারাতি ধনী হতে চলেছেন, বিশেষ করে মফস্বল এলাকার ব্যবসায়ী গন করোনা সংক্রমণের দোহাই দিয়ে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র চড়া দামে বিক্রি করছেন ।প্রশাসনের কোনো দায়িত্ব আছে বলে চোখে পড়ে না এমনটা বললেন মফস্বল এলাকার বাসিন্দারা ।

গত এক মাসে মিনি লক ডাউন চলাকালীন সময়ে সাধারণ দিন হাজিরা করা মানুষের ভোগান্তি চরমে পৌঁছেছে , কেউ কাজ পাচ্ছেন না , তবে কেন্দ্র সরকারের তরফে মে ও জুন মাসে অতিরিক্ত ভাবে প্রধান মন্ত্রী অন্ন যোজনা র চাউল বরাদ্দ করা হয়েছে , কিন্তু তা বিতরণ করা নিয়ে ব্যাপক খেলি মেলি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে । বিশেষ করে  গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার সমবায় সমিতির মানুষ রাম ঠগা খাচ্ছেন , তাদের অনেকেই বলেছেন  খাদ্য সুরক্ষা কার্ডের বরাদ্দকৃত চাউল ঠিকই পেয়েছেন , কিন্তু প্রধান মন্ত্রীর অন্ন যোজনা র চাউল সেই মতো পান নি , উদাহরণ হিসেবে তাদের একজন বলেছেন আমার পরিবারের মোট জনসংখ্যা চার জন খাদ্য সুরক্ষা কার্ডের বরাদ্দকৃত বিশ কেজি এবং অতিরিক্ত আরও বিশ কেজি সরকার বরাদ্দ করেছেন মে মাসে ,মোট চাউল যেখানে চল্লিশ কেজি পাওয়ার কথা সেখানে আটাশ কেজি চাউল পেয়েছি , বারো কেজি কম দেওয়ার আপত্তি করলে ডিলার গন বলেন ভারতীয় খাদ্য নিগম চাউল কম দিয়েছে ।

এখানে উল্লেখ করা আবশ্যক সরকার বারবার  অতিরিক্ত  চালের কথা বললেও বাস্তবে যে সুষ্ঠু ভাবে বন্টন হচ্ছে না সে ব্যাপারে ওয়াকিবহাল আছেন কি না তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সচেতন মহল ।তাদের মতে ভারতীয় খাদ্য নিগম এভাবে বরাদ্দকৃত চাউল কখনও আটকে রাখতে পারে না । এখন প্রশ্ন হচ্ছে  এই চাউল কম দেওয়া হলো কেন?  অ সামরিক খাদ্য সরবরাহ বিভাগের দায়বদ্ধতা নিয়ে জোরদার চর্চা শুরু হয়েছে ।কাছাড় জেলার বিধায়ক বৃন্দ  ও জেলা শাসক, এই কেলেঙ্কারি নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের নির্দেশ দিতে সাধারণ মানুষ দাবি জানিয়েছেন ।