DIGITAL

October 4, 2022

APTCE 18538973148

ত্রুটি পূর্ণ আর্থ- সামাজিক-জাতি গত সমীক্ষা রিপোর্ট 2011, বললো বিভিন্ন সংগঠন

বিশেষ প্রতিবেদন 8 ই জুন শিলচর–  , গরিবী  হটাও  বললে যে  হঠে যাবে তা কোন  দিন সম্ভব নয় , যতক্ষণ না সুষ্ঠ সমীক্ষা হবে ততদিন গরীবের বরাদ্দকৃত সুযোগ সুবিধা ভোগ করবে বিত্তবান লোকজন। আজ এই প্রতিবেদক সরজমিনে বরাক উপত্যকার বিভিন্ন গ্রামে গেলে গ্রামের সাধারণ দিন হাজিরা করা মানুষ বললেন দেখুন আমাদের ঘর,  বাঁশের ঘরে এই প্রবল বৃষ্টিতে ভিজতে হচ্ছে আমাদের , প্রধান মন্ত্রী বারবার বলছেন কারো যেন কাচা ঘরে বাস করতে না হয় ।কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য আমাদের নাম 2011 সনের আর্থ সামাজিক ও জাতিগত সমীক্ষা রিপোর্টে স্থান পায়নি । তারা দুঃখ প্রকাশ করে বলেন যাদের পাকা বাড়ি , গাড়ি , ব্যবসা চাকরি আছে তাদের ঘরে সব সুযোগ সুবিধা পৌঁছে যায় ।

এই প্রতিবেদক বিশেষ সূত্রে জানতে পেরেছেন বিগত 2011  ইংরেজি তে তৎকালীন রাজ্য সরকার কলকাতার এক বেসরকারি সংস্থার মাধ্যমে এই সমীক্ষার কাজ শুরু করেন , তখন  যে সব কর্মী এই কাজে নিয়োজিত ছিলেন তারা গ্রামের বিত্তবান লোকের ঘরে বসে এক একটি পাড়ার বাসিন্দা দের তথ্য সংগ্রহ করেন , ফলে প্রকৃত গরিব মানুষ বিত্তবান হয়ে গেছেন আর গরিব মানুষ হয়ে গেছেন বিত্তবান ।ঐ তালিকায় এমন সব মানুষের নাম সন্নিবেশিত হয়েছে যারা অর্থের বিনিময়ে তাদের নাম চূড়ান্ত করে পায়খানা থেকে শুরু করে ঘর পেয়েছেন ।এখানে উল্লেখ করা আবশ্যক জব কার্ড যাদের পাওয়া উচিত তারা বঞ্চিত হয়েছেন কিন্তু যাদের বাড়ি গাড়ি জমি জমা আছে দিব্যি তারা জব কার্ডের সুযোগ সুবিধা ভোগ করছেন । আজ বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠনের নেতারা বললেন আমরা অনেক আন্দোলন করছি এই সব সাধারণ মানুষের জন্য কিন্তু গোড়ায় যদি গলদ থাকে তাহলে এই সব মানুষের ভাগ্যে প্রধান মন্ত্রী আবাস যোজনা জীবিত অবস্থায় মিলবে বলে মনে হচ্ছে না । তাই আসামের মাননীয় মূখ্য মন্ত্রী যদি এই সমীক্ষার কাজ সামরিক বাহিনীর মাধ্যমে শুরু করেন তাহলে সরকারি অর্থের অপচয় বন্ধ হবে অন্য দিকে প্রধান মন্ত্রীর আবাস যোজনা র সুফল প্রকৃত গরিব মানুষ ভোগ করতে সক্ষম হবে , অন্যথায় প্রধান মন্ত্রীর স্বপ্নের ভারত অধরা থেকে যাবে ।এই তালিকা নিয়ে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে জেলা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে কিন্তু কোন সুরাহা হয়নি এখন মাননীয় মূখ্য মন্ত্রী হেমন্ত বিশ্ব শর্মা কি পদক্ষেপ  নেন তা নিয়ে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন সাধারণ দিন হাজিরা করা মানুষ ।