DIGITAL

January 26, 2023

APTCE 18538973148

ভ্যাকসিন কেন্দ্র গুলিতে ব্যাপক হয়রানির সম্মুখীন হচ্ছেন জনসাধারণ

নিজস্ব সংবাদদাতা বড় খলা 13 জুলাই—– প্রথম দিকে ভ্যাকসিন নিতে যে সকল মানুষ আগ্রহী ছিলেন না বর্তমানে সরকারের কঠোর নির্দেশে সবাই ভ্যাকসিন কেন্দ্র গুলিতে যেতে বাধ্য হয়েছেন ।স্বাস্থ্য বিভাগের তরফে শুধু স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভ্যাকসিন প্রদানের উপর নির্ভর না করে প্রত্যন্ত গ্রামের মানুষের সুবিধার জন্য প্রতিটি পঞ্চায়েত এলাকায় শিবির স্থাপন করে ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থাও করেছিলেন ।বরাক উপত্যকার প্রতিটি পঞ্চায়েত এলাকায় বর্তমানে শিবির না থাকার ফলে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র গুলিতে ভীড় পরিলক্ষিত হচ্ছে ।

সূত্রের দাবি বৃহত্তর বিক্রমপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র এলাকার মানুষ প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠেই বিক্রমপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ছুটে আসেন , ফলে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে এক অরাজকতা সৃষ্টি হয় ।সাধারণ মানুষ করোনা সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পেতে ছুটে আসলে ও এখান থেকে যে সংক্রমিত হবেন না তার নিশ্চয়তা নেই, কারণ এখানে নেই কোন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার প্রবনতা , লম্বা লাইনে সকাল ছয়টা থেকে দাড়িয়ে থেকে যখন বলা হয় ভ্যাকসিন আসেনি , তখন সেই সব মানুষদের বিশেষ করে দিন হাজিরা করা মানুষের ভোগান্তি চরমে ওঠে । জানা গেছে গতকা , বিক্রমপুর স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভ্যাকসিন আসেনি , আজ ও আসবে না , সাধারণ মানুষ ঘরমুখো হচ্ছেন ।এদিকে বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর স্বাস্থ্য কর্মীদের উপর হামলা করলে যে কঠোর শাস্তি দেওয়ার আইন করেছেন ফলে কেউ মুখ খুলতে নারাজ , এমতাবস্থায় স্বাস্থ্য বিভাগ তার মতে কর্তব্য পালন করছেন ।

ভুক্তভোগী মানুষ পঞ্চায়েত প্রতিনিধি দের কাছে জোরালো দাবি জানিয়েছেন যে অবিলম্বে নিজ নিজ পঞ্চায়েত এলাকার স্কুল গুলিতে শিবির স্থাপনের জন্য জেলা প্রশাসনের  সাথে যোগাযোগ করে সাধারণ মানুষের হয়রানি বন্ধ করার পদক্ষেপ নেন ।সূত্রের খবর শহর এলাকার লাগোয়া অঞ্চলে ও ভ্যাকসিন নিয়ে রাস্তা অবরোধ হয়েছে , তাই জেলা প্রশাসনের উচিত কোন কোন জায়গায় কতটা ভ্যাকসিন প্রতিদিন দেওয়া হবে সেটা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ করলে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি পোহাতে হবে না । বড় খলা সমষ্টি র মাননীয় বিধায়ক মিস বাহুল্ ইসলাম লস্করের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষ ।