DIGITAL

January 26, 2023

APTCE 18538973148

মূখ্য মন্ত্রীর কঠোর পদক্ষেপ, বিপাকে পড়তে পারেন রেশন ডিলার

গুয়াহাটি থেকে বিকাশ দে 24 শে অক্টোবর—– মূখ্য মন্ত্রী এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন চাউল মোদীর, কিন্তু পুলিশ আমার — কথাটা কিন্তু ঠিকই বলেছেন।করোনা সংক্রান্ত বিধি নিষেধ আরোপ করার পর সাধারণ মানুষের ভোগান্তি যখন চরমে উঠেছিল তখন প্রধান মন্ত্রী গরীব মানুষের জন্য প্রধান মন্ত্রীর অন্ন যোজনা র মাধ্যমে প্রতি মাসে খাদ্য সুরক্ষার বরাদ্দকৃত কৃত চাউলের সাথে অতিরিক্ত ভাবে মাথা পিছু পাঁচ কেজি করে চাউল বরাদ্দ করেন ।অর্থাৎ খাদ্য সুরক্ষার কার্ডের মাধ্যমে যদি একটি পরিবার মাসে বিশ কেজি চাউল পান সেখানে অতিরিক্ত ভাবে আরও বিশ কেজি করে পাওয়ার কথা কিন্তু দেখা গেছে প্রতি মাসে মাথা পিছু যেখানে দশ কেজি করে চাউল পাওয়ার কথা সেখানে সাত কেজি করে চাউল জনসাধারণের মধ্যে বিতরন করা হয়েছে তাও আবার লিখিত ভাবে ।

সূত্রের মতে গ্রাহকদের প্রশ্নের উত্তরে রেশন ডিলার গন বলেন ভারতীয় খাদ্য নিগম চাউল কম দিয়েছে , প্রতিবাদ করতে গিয়ে গরীব মানুষ বিরক্ত হয়ে পড়েছেন , এদিকে প্রতিটি জেলার খাদ্য ও অ সামরিক সরবরাহ বিভাগের কর্তারা মাসের বরাদ্দকৃত তালিকা সাংবাদিক দের ও  দেখাতে রাজী নন । বিশেষ সূত্রে জানা গেছে সরবরাহ বিভাগের  কর্তারা ও সমবায় সমিতির কর্তারা  সিন্ডিকেট তৈরী করে বিভিন্ন ধরনের চাপে রেখে রেশন ডিলারদের খাতায় কিন্তু সরকারের বরাদ্দকৃত খাদ্য সামগ্রীর পরিমাণ ঠিকই লিখে দিচ্ছেন কিন্তু গ্রাহকদের খাতায় রেশন ডিলার গন কম লিখে দিয়ে একবার বলছেন পরিবহন খরচের জন্য কার্ড প্রতি এক কেজি কেটে নিচ্ছেন আবার বলছেন খাদ্য সামগ্রী কম বরাদ্দ করা হয়েছে তাই আমাদের করার কিছু নেই ।জনসাধারণ ও মুখ বুজে সহ্য করছেন এসব দূর্নীতি।

দেরিতে হলেও মাননীয় মূখ্য মন্ত্রী যে পদক্ষেপ হাতে নিয়েছেন তাতে সাধারণ মানুষের লাভ হবে বলে সচেতন মহল মনে করেন। কিন্তু উদোর পিণ্ডি বুধের ঘাড়ে পড়বে বলে মনে হচ্ছে, কারন ডিলারদের কোন দোষ নেই , তাদেরকে চাপে রেখে বছরে একবার এক মাসের বরাদ্দ করা সামগ্রী তছরুপ করা হয় যেটা নাকি দীর্ঘ দুই দশক ধরে চলে আসছে , আর তাদের খাতায় যথারীতি লিখে দেওয়া হয় ।এখন যদি পুলিশ ডিলারের খাতা আর গ্রাহকদের খাতা একসাথে দেখেন তাহলে সব পরিষ্কার হয়ে যাবে বলে গ্রাহক গন মনে করছেন ।বিগত দুই বছরের হিসাব দেখলে বুঝা যাবে করোনা কার ও পৌষ মাস আর কারো সর্বনাশ করেছে ।

মূখ্য মন্ত্রীর এই পদক্ষেপ সার্থক হবে এবং সত্যি তিনি যদি গরীব মানুষের সাহায্য করতে চান তাহলে 2011 ইংরেজিতে তৈরি করা SECC   তালিকা পুলিশের মাধ্যমে তদন্ত করে এখনো যারা ঝুপড়ি ঘরে বাস করছেন তাদের জন্য ঘরের ব্যবস্থা করতে বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের তরফে অনুরোধ জানানো হচ্ছে ।