DIGITAL

October 5, 2022

APTCE 18538973148

অনলাইন পদ্ধতি কতটুকু সফল হলো — অভিমত ভুক্তভোগী দের

বিশেষ প্রতিবেদন ১১ ই ফেব্রুয়ারি শিলচর—- বর্তমান সরকারের আমলে দূর্নীতি প্রতিরোধ করতে যে সকল পদক্ষেপ হাতে নেওয়া হয়েছে তার মধ্যে অনলাইন পদ্ধতিতে বিভিন্ন বিভাগের লাইসেন্স নবায়ন ও নবীকরন অন্যতম বললে অত্যুক্তি হবে না। সরকার যে উদ্দেশ্যে নিয়ে এই পদক্ষেপ হাতে নিয়েছিল বাস্তবে তার সুফল মিলছে না বলে বিস্তর অভিযোগ উঠেছে। উদাহরন স্বরুপ পরিবহন বিভাগের লাইসেন্স নূতন ভাবে করা সহ নবীকরন ও ফিটনেস পেতে মালিক ও চালক দের যে ভোগান্তি পোহাতে হয় তার সত্যতা যাচাই করতে এই প্রতিবেদক উপস্থিত হলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বাস চালক বললেন ফিটনেস ফি চারশো টাকা জমা দিয়ে ভাবছিলাম সার্টিফিকেট পেয়ে যাবো ,কারন সরকার দূর্নীতি প্রতিরোধ করতে এই অনলাইন পদ্ধতি হাতে নিয়েছে, কিন্তু বাস্তবে তার সুফল পাওয়া যাচ্ছে না ।

বিস্তারিত জানতে চাইলে তিনি বলেন আজ চার পাঁচ দিন ধরে নিয়মিত বাস নিয়ে অফিসের সামনে হাজির হচ্ছি , কিন্তু এক বাবু আসলে অন্য বাবু আসছেন না ফলে কাজ আর হয় না, অফিসের কর্মীরা ও পাত্তা দেন না, কাগজপত্রে গোলযোগ আছে বলে এড়িয়ে চলেন ।এখন কি করবেন বললে এই চালক বলেন অনলাইনে আবেদন করা যায় কিন্তু অফলাইনে সেই আগের মতই কাজ করব ভাবছি ,সাত হাজার টাকায় চূড়ান্ত করলাম সোমবার আসলেই কাজ হয়ে যাবে ।আরেক বেকার যুবক নূতন লাইসেন্স করতে আসলে যে ভোগান্তি পেয়েছেন তা রীতিমত অবাক করার মতো ঘটনা, তিনি বলেন অনলাইনে আবেদন করলেও যে লাইসেন্স পেয়ে যাবেন তা ভূল করে মনে নিবেন না,কারন জিরো ফিগারে এখানে কিছু যে হয় না তা পরিলক্ষিত হয়েছে , লোক দেখানো অনলাইন পদ্ধতি বাস্তবে অফলাইনে চলে না গেলে নূতন লাইসেন্স সহ নবীকরন ও ফিটনেস মিলেনা ।এই প্রতিবেদক ও অফিসের কর্মচারী দের চালচলন দেখে এটাই উপলব্ধি করেছেন যে সবার টাকা দরকার দীর্ঘদিন ধরেই যে পদ্ধতি চলে আসছিল আজ হঠাৎ করে শূন্য হাতে কাজ করতে হাত কাপে । পরিশেষে একটি কথা বলা দরকার যত অনলাইন পদ্ধতি আনা হোক না কেন যতক্ষণ পর্যন্ত কর্মীরা তাদের মানসিকতা পরিবর্তন না করবেন ততক্ষণ কোন লাইনে দূর্নীতি প্রতিরোধ করতে পারবে না কোন সরকার ।