DIGITAL

January 27, 2023

APTCE 18538973148

বরাক উপত্যকায় আরেক সিঙ্গুর হতে চলেছে কি? অভিমত

বিশেষ প্রতিবেদন ১১ ই মে শিলচর—– এই কদিনের ডলু বাগান এলাকায় বাগান শ্রমিকদের মানব শৃঙ্খলিত প্রতিবাদের দৃশ্য অন্যদিকে পুলিশের বিশাল আকারের বাহিনীর উপস্থিতি মনে করিয়ে দেয় পশ্চিম বঙ্গের সিঙ্গুরের সেই অতীত দৃশ্য। পশ্চিমবঙ্গের বিষয়টি ছিল শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়া বিষয়ক আর আমাদের বরাক উপত্যকার ডলু বাগানের বিষয়টি আন্তর্জাতিক মানের বিমান বন্দর নির্মাণের। পার্থক্য ভিন্ন।

এখানে উল্লেখ্য যে এই বড়খলা বিধানসভা চক্রের ডলু বাগানের লালবাগ,ময়না গড় এলাকায় প্রস্তাবিত গ্রীণ ফিল্ড এয়ারপোর্ট তৈরি করার জন্য বিগত জানুয়ারি মাসে সরকার, বাগান কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিক সংগঠনগুলোর এক যৌথ মৌ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয় তাতে শ্রমিকদের কল্যাণে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।সেই চুক্তি মোতাবেক আসাম সরকার মোট ৫০ কোটি টাকা বাগান কর্তৃপক্ষ কে মিটিয়ে দিতে সিদ্ধান্ত নেয়,আর ইতিমধ্যেই ২কোটি ৩৭ লক্ষ টাকা প্রথম কিস্তির অর্থ বাগান কর্তৃপক্ষ কে সমঝিয়ে দেয়।বাগান কর্তৃপক্ষ ও সেই মতো জেলা প্রশাসনের উপস্থিতিতে বাগান শ্রমিকদের গ্র্যচুয়েটির বকেয়া পাওনা মিটিয়ে দেয়।

তারপরও আজকের এই প্রতিকুল আবহাওয়া উপেক্ষা করে ময়না গড় এলাকায় মজুরী শ্রমিক ইউনিয়নের সমর্থনে একাংশ শ্রমিক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করেছে এদিকে জেলা প্রশাসন ও বেকে বসেছে। সূত্র জানিয়েছে সরকার অনুমোদিত শ্রমিক ইউনিয়ন গুলি আগেই চুক্তি স্বাক্ষর করেছে তাই তাদের উপস্থিতি টের পাওয়া না গেলেও মজুরি শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা শ্রমিকদের উস্কানি দিচ্ছে। জানা গেছে মোট ৩০ পরিবার শ্রমিক আজ ও জারি রেখেছেন তাদের একগুঁয়েমি মনোভাব।এক বিশেষ সুত্রে জানা গেছে প্রস্তাবিত গ্রীণ ফিল্ড এয়ারপোর্ট এখানে যে হবে তা নিশ্চিত তবে আগামী ৩১ শে মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে , প্রশাসন যে ভাবে ধৈর্য ধরে এগোচ্ছে তাতে অনেকেই বলছেন অচিরেই একটা সুরাহা হবে।