DIGITAL

January 27, 2023

APTCE 18538973148

গুজবে কান না দিতে প্রসাশনের আহ্বান, ভিত্তি হীন সংবাদ পরিবেশন কারী দের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে দাবি জানান সচেতন মহল

বিশেষ প্রতিবেদন ২৯ শে জুন শিলচর—- প্রলয়ঙ্করী বন্যার কবলে পড়ে জলবন্দি মানুষ যখন খাদ্য সামগ্রী সহ পানীয় জলের জন্য হাহাকার করছেন ঠিক সেই মুহূর্তে একাংশ নিকৃষ্ট মানসিকতার লোক যেন গুজব ছড়াতে উঠে পড়ে লেগেছে বলে মনে হয়েছে।বিগত এক পক্ষ কাল থেকে সামাজিক মাধ্যমে একাধিক বার প্রকাশিত বিভিন্ন স্থানের ভিডিও ও ছবি নূতন করে আপলোড করে একাংশ ইউটিউভার দিব্যি তাদের টিআরপি বৃদ্ধি করার অভিযোগ করেছেন সচেতন নাগরিক গন।

গত দুই দিনের আবহাওয়ার সামান্য উন্নতি হতেই জলবন্দি মানুষের মনে সামান্য আশার সঞ্চার হয়েছিল, অন্ধকার শ্মশান সদৃশ শিলচর শহরের মানুষ উৎফুল্লিত হয়েছেন এই বলে যে আর কিছু না হোক অন্তত বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হবে। বর্তমান এই প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় যখন বরাক উপত্যকার মানুষ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন ঠিক সেই সময়ে মোবাইল ফোন কিছুটা হলেও সেই ঘাটতি মেটাতো কিন্তু  চার্জ হীন মুঠো   ফোন হাতের মুঠোয় রয়েছে, চার্জ দিতে পারছেন না জলবন্দি মানুষ। গতকাল দেখা গেছে বেশ কিছু এলাকায় ফুটপাতের উপরে লম্বা সারি ধরে জেনারেটরের মাধ্যমে মোবাইল চার্জ করছেন।

কিন্তু এই মোবাইল ফোন চার্জ হতেই সমগ্র শহর এলাকায় এক গুজব এমন ভাবে হুড়মুড় করে ছড়িয়ে পড়তে শুনা গেছে যে আগামী কাল ২৯ শে জুন মনিপুর বাঁধের জল ছাড়া হবে প্রশাসন থেকে সতর্কতা সংকেত জারি করা হয়েছে যাতে ঘর থেকে বের না হতে,যতো সময় গড়িয়ে গেছে এই গুজবে আরও অলঙ্কার এটে শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রামে ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন একাংশ সচেতন মহল।

এই গুজবের খবর জেলা প্রশাসনের নজরে আসার পর প্রশাসন এক বিবৃতিতে ঘোষনা করেছেন যে এই ধরনের সতর্কতা অবলম্বন করতে প্রসাশন কোনো ধরনের নির্দেশনা জারি করে নি, প্রশাসন এই ধরনের নিয়ন্ত্রণ হীন সংবাদ কে ভিত্তিহীন ও গুজব বলে জানিয়েছেন।

স্থানীয় সুনাগরিক গন এই ধরনের গুজব যাতে ছড়িয়ে না পড়ে তারজন্য আইন অনুযায়ী পদক্ষেপ হাতে নিতে অনুরোধ জানিয়েছেন।