DIGITAL

December 4, 2022

APTCE 18538973148

Whatsapp দিয়ে ও ব্ল্যাকমেইল চলছে, অপরিচিত নাম্বারে কল গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকুন

বিশেষ প্রতিবেদন ১২ ই অক্টোবর শিলচর — তথ্য প্রযুক্তি যত উন্নত হচ্ছে তার সমান তালে তালে প্রতারনার ছল কৌশল ও বৃদ্ধি পাচ্ছে। দিনে দিনে যেভাবে মুঠোফোনের ব্যবহার বেড়ে চলেছে তাতে করে সমগ্র বিশ্ব একদিন মোবাইল জগতে প্রবেশ করে যাবে। একদিকে মুঠোফোন ব্যবহার করে সাধারণ মানুষ দূর কে নিকট করে ফেলেছে, মুঠোফোন ব্যবহার করে সাধারণ মানুষ যেভাবে উপকৃত হচ্ছেন ঠিক তেমনি ক্ষতিগ্রস্ত ও হচ্ছেন। বিশেষ করে ইন্টারনেট ই বর্তমানে কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে,এই ইন্টারনেটের বদৌলতে যেমন বিশ্বের আনাচে কানাচে সংঘটিত ঘটনার যেমন খবর পাওয়া যায় তেমনি দেশ বিদেশের মাটিতে বসবাসরত আত্মীয় স্বজনের সাথে যোগাযোগ ও করা যায়। এক কথায় ইন্টারনেটের যেমন সুফল আছে ঠিক তেমনি কুফল ও আছে।

প্রায় সময়ই দেখা যায় বিভিন্ন অসাধু চক্র ওয়েবসাইট খুলে প্রতারণা করে সাধারণ মানুষ কে ঠগছে , মানুষ ও তাদের ফাঁদে পা দিয়ে সর্বসান্ত হচ্ছেন। এদিকে মোবাইল ফোনে ম্যাসেজ দিয়ে অনেকেরই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে একদল প্রতারক। বর্তমানে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে ব্যাপক হারে সাধারণ মানুষ দের প্রতারনার ফাঁদে ফেলে সর্বসান্ত করতে লেগে পড়েছে এক দুষ্ট চক্র।এই চক্র মেয়েদের দিয়ে চালু করা হয়েছে। বিভিন্ন মোবাইল পরিসেবা কোম্পানির সিমকার্ড সংগ্রহ করে যে সব গ্রাহক হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করেন তাদের নাম্বারে হাই লিখে পাঠায় এই দুষ্ট চক্র। এমনভাবে তাদের প্রফাইল পিকচার গুলো তে যৌন আবেদনময়ী নারীর ফটো এঁটে দেয় তাতে করে বেশীরভাগ হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার কারী আকৃষ্ট হয়ে যায়।

এই প্রতিবেদক কে গতকাল এক ভদ্রলোক বললেন তার হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বারে ৮৮৭১৫৪৮৭১৭ এই নাম্বার থেকে হাই লেখা আসে, বারবার হাই হাই দেখে তিনি ও সহজ ও সরলভাবে হাই লিখে পাঠান, এরপর বেশ কিছু সময় অম্ল মধুর কথা বলেন, কিছু সময় পর ভিডিও কলের মাধ্যমে পরস্পরের মধ্যে এক রোমাঞ্চকর ভাব বিনিময় হয়,একে অপরের বিষয়ে অবগত হন। কিছু সময়ের ব্যবধানে সেই লাবণ্যময়ী নারী ভদ্রলোকের কথোপকথনের রেকর্ড সম্বলিত একটি অশ্লীলতা পূর্ণ ভিডিও পাঠিয়ে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে অন্যতায় ভিডিও ভাইরাল করার হূমকি দেয়। সঙ্গে সঙ্গে ভদ্রলোক সেই নাম্বারটি ব্লক করে দেন।

এধরনের অপরিচিত কল,ম্যাসেজ গ্রহন না করার জন্য মোবাইল পরিসেবা কোম্পানির তরফে বারবার সতর্ক থাকতে বলা হলেও যারা এই ধরনের অপরিচিত কল,ম্যাসেজ গ্রহন করে তারা আগে ও সর্বসান্ত হয়েছেন আর বর্তমানে ও হচ্ছেন। এই সব নিয়ে মোবাইল ফোন গ্রাহক দের সতর্কতা অবলম্বন করা আবশ্যক বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন সচেতন মহল।