DIGITAL

February 5, 2023

APTCE 18538973148

আজকের কেবিনেট বৈঠকের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন বরাক উপত্যকার মানুষ, উপেক্ষিত স্থানীয় সুপারী ও বিকল্প সড়কের দাবি

বিশেষ প্রতিবেদন ২৯শে নভেম্বর শিলচর —- প্রথম বারের মতো অনুষ্ঠিত আসাম মন্ত্রী সভার শিলচরের বৈঠক কে ঘিরে বেশ উৎসাহ উদ্দীপনার সৃষ্টি হয়েছিল এই বলে যে সরকার আমজনতার দাবি কে সম্মান প্রদর্শন করে গ্রাম বরাকের মানুষের জীবিকা নির্বাহের পথ খুলে দিতে স্থানীয় সুপারী রপ্তানির নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে নূতন নির্দেশিকা ঘোষণা করতে পারে তার সাথে বরাক উপত্যকার মানুষের ভাবাবেগ বিজরিত শিলচর ভাষা শহীদ স্টেশনের নামকরণ এবং বিকল্প সড়কের প্রয়োজনীতার উপর গুরুত্ব উপলব্ধি করে একটা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে কিন্তু এসব নিয়ে কোন সিদ্ধান্ত না হওয়ায় জোরদার আলোচনা শুরু হয়েছে।

যদি ও আজকের এই কেবিনেট বৈঠকে এসব নিয়ে কোনো  সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়নি তথাপি বৃহত্তর স্বার্থে আজকের বৈঠকে গৃহীত সিদ্ধান্ত গুলো বরাকের এক বিরাট প্রাপ্য বলে জানিয়েছেন একাংশ সচেতন নাগরিক।

আজকের কেবিনেট বৈঠকে গৃহীত প্রস্তাব গুলি হলো —-১৩৫ কোটি ব্যয়ে নির্মিত হবে বরাক উপত্যকার মিনি সচিবালয়,২ টি উড়াল নির্মাণ করা হবে, শিলচরের কেন্দ্রীয় কারাগার স্থানান্তরিত করা হবে লক্ষ্মীপুরে এবং এই স্থানে নির্মাণ করা হবে বোটানিক্যাল গার্ডেন, শিলচর গুরুচরণ কলেজ কে রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়ে উন্নীত করা হবে,৫৯ কোটি ব্যয়ে বেতু কান্দি বাঁধ নির্মাণ করা হবে,মহিষা বিল কে রিজার্ভ করে রাখা হবে, শিলচর কালাইন সড়কের জল মগ্ন অঞ্চলে একটি উড়াল পুল নির্মানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে,ধলাই ও লক্ষ্মীপুর এলাকায় ২ টি মডেল কলেজ স্থাপন করা হবে, দুগ্ধ উৎপাদন কেন্দ্র স্থাপন করা হবে,২০০ বিশেষ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল শিলচর মেডিকেল কলেজে নির্মাণ করা হবে,৩০০ শয্যা বিশিষ্ট শিলচর জেলা হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে,করিম গঞ্জ জেলায় ৬৫০ কোটি ব্যয়ে একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপন করা হবে, শিলচর ক্রীড়া সংস্থার উন্নয়নে ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে, উদার বন্দ ডি এন হাইয়ার সেকেন্ডারি স্কুল ও কাছাড় হাইস্কুল কে ১০ কোটি টাকা উন্নয়ন মূলক কাজের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ।

এদিকে   অসম বীর লাচিত বড় ফুকনের জন্ম দিবস বরাক উপত্যকায় জমজমাট ভাবে পালন হওয়ায় আজকের এই কেবিনেট বৈঠকে মাননীয় মূখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন। তিনি আজকের এই সভায় ঘোষণা করেন যে বরাক উপত্যকার মানুষের দীর্ঘদিনের বিমান বন্দরের দাবি পূরণ হতে চলেছে,বিমান বন্দর কর্তৃপক্ষ এই গ্রীণ ফিল্ড বিমান বন্দর নির্মাণের অনুমোদন প্রদান করেছে । আজ বড়খলা বিধানসভা চক্রের ডলু তে এক অনুষ্ঠানে প্রতিশ্রুতি মোতাবেক ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের হাতে এক লাখ টাকার চেক বিতরণ করবেন তিনি নিজেই।