DIGITAL

February 5, 2023

APTCE 18538973148

সমষ্টি পুনঃ নির্ধারণ পার্বত্য রাজ্য গঠনের অন্তিম ধাপ, অচিরেই আসাম পার্বত্য রাজ্য হিসাবে ঘোষণা করা হবে -অভিমত

বিশেষ প্রতিবেদন ৬ ই জানুয়ারি শিলচর —- আসাম রাজ্য যে পার্বত্য রাজ্যের মর্যাদা পাবে সেটা ২০১৪ ইংরেজীর নির্বাচন প্রচারের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এক বিশাল নির্বাচনী জনসভায় ভাষণ প্রসঙ্গে বলেছিলেন, দীর্ঘ দশ বছর পর বিজেপি দলের নির্বাচনী ইশতেহার বাস্তবায়ন হতে চলেছে। পার্বত্য রাজ্য গঠনের জন্য সমষ্টি পুনঃ নির্ধারণ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে এবং ২০১১ ইংরেজীর লোক গননা মতে সেটা করা হবে বলে সরকার স্পষ্ট করে ঘোষণা করেছে।আর এই মতো হলে আসাম রাজ্য অচিরেই পার্বত্য রাজ্যের মর্যাদা পাবে।

এখন পর্যন্ত যতটুক জানা গেছে তাতে দেখা যাচ্ছে ২০১১ ইংরেজীর লোক গননা মতে আসামে মোট ৩.৯ মিলিয়ন অনুসুচীত জনজাতির মানুষ রয়েছেন।১৪ জন গোষ্ঠী ইতিমধ্যেই অনু সুচীত জনজাতির মর্যাদা লাভ করেছেন সমতল জেলার। এদিকে আসাম রাজ্যে মোট ১৫ টি স্বশাসিত জেলা রয়েছে এছাড়া ৪.৫ মিলিয়ন চা জনজাতি,২ মিলিয়ন আহোম,৬.৯ মিলিয়ন কোচ রাজবংশী,২ মিলিয়ন মরাণ,মটক এবং চুতিয়া  জনসাধারণ আছেন আর এই হিসেবটা যোগ করলে  মোট জনজাতি  ৩১.১ মিলিয়ন বর্তমান আসামে বসবাস করছেন।

মোট হিসেব টা কিন্তু চূড়ান্ত নয়, এখনও ৬ জনগোষ্ঠীর জনজাতি মর্যাদা প্রদান করা বাকি আছে,আশা করা হচ্ছে শীঘ্রই তাদের জনজাতির মর্যাদা প্রদান করা হবে।আর তখনই আসামের মোট জনসংখ্যার ৫০%  জনজাতি হয়ে যাবে তখন আর পার্বত্য রাজ্য গঠনের কোনো অন্তরায় থাকবে না।আর যখন ঘোষণা করা হবে তখন মোট ১২৬ টি বিধানসভার মধ্যে ৮০ টি বিধানসভা জনজাতি দের জন্য সংরক্ষিত হয়ে যাবে। যার ফলে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রতিনিধিত্ব হ্রাস পাবে আর এটা সমষ্টি পুনঃ নির্ধারণের খসড়া দেখে অনুমান করা যাচ্ছে।