DIGITAL

May 31, 2023

APTCE 18538973148

বরাক উপত্যকার সাংবাদিকদের স্বার্থে গঠন হলো এক মজবুত সংস্থা

বিশেষ প্রতিবেদন ২৭ শে এপ্রিল শিলচর — প্রায় প্রতিদিনই পরিলক্ষিত হয় সাংবাদিক গন বিভিন্ন হেনস্তার সম্মূখীন হচ্ছেন। কিন্তু এসবের বিহিত করতে  বরাক উপত্যকায় একটি  শক্তিশালী সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রয়োজন আছে বলে মনে করেন বিশিষ্ট সাংবাদিক তথা প্রকৃতি নিউজ এজেন্সির প্রধান হারাণ দে।

সেইমতো তিনি বরাক উপত্যকার তিন জেলার সাংবাদিকদের নিয়ে আজ শিলচর পেনসনার ভবনে এক সভায় মিলিত হন।এই সভায় উপস্থিত ছিলেন বরাক উপত্যকার তিন জেলার সাংবাদিক গণ। আহ্বায়ক হারাণ দে আজকের সভার বিষয়ে উপস্থিত সাংবাদিকদের অবগত করান।এই সভায় উপস্থিত সাংবাদিকদের মধ্যে বরাক কণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক সন্তোষ চন্দ,হাইলা কান্দি জেলার সাংবাদিক সদানন্দ ভট্টাচার্য, দেবদুলাল মালাকার প্রমূখ তাদের বক্তব্যে বর্তমান সময়ের সাংবাদিকতার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

সভায় সম্প্রতি বিভিন্ন স্থানে সংঘটিত সাংবাদিক হেনস্তার প্রসঙ্গ উঠে আসে।সেই অনুযায়ী আজকের এই ইউনিয়ন গঠনের এক বিশেষ তাৎপর্য আছে বলে মনে করেন উপস্থিত সাংবাদিকরা। সভায় সাংবাদিকদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করতে এই ইউনিয়ন এক কার্যকর ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে মত প্রকাশ করেছেন সবাই।

অবশেষে সাংবাদিক দের বৃহত্তর স্বার্থে ২১ সদস্য বিশিষ্ট বরাক উপত্যকা জার্নালিস্ট ইউনিয়ন সর্বসম্মতিক্রমে গঠন করা হয়।এই কমিটির বিভিন্ন পদাধিকারী হলেন  হারাণ দে সভাপতি, সহসভাপতি চার জন যথাক্রমে হিমাশীস ভট্টাচার্য,শতানন্দ ভট্টাচার্য, স্বর্ণালী চৌধুরী,ও জি এম চৌধুরী  সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হাই লস্কর , যুগ্ম সম্পাদক বিজয় দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক খায়রুল আলম মজুমদার, প্রচার সম্পাদক দেব দুলাল মালাকার, সাংস্কৃতিক সম্পাদক দুই জন যথাক্রমে সন্তোষ চন্দ ও বাপী রায় এবং সহকারী সম্পাদক হিসেবে রাজু দে ও শঙ্করী চৌধুরী কে মনোনীত  করা হয়। এছাড়া কার্যকরী সদস্য হিসেবে মিঠু লাল চৌধুরী,অরুপ রায়, পিঙ্কু রায় হালদার, বিপ্লব কর চৌধুরী,মহিম উদ্দিন লস্কর ও ধ্রুব জ্যোতি চক্রবর্তী কে মনোনীত করা হয়।

আজকের সভায়  সাংবাদিকদের তাৎক্ষনিক ভাবে রেল ভ্রমনের টিকিটের সুবিধা দিতে রেল বিভাগের সাথে যোগাযোগ করতে সভাপতি হারান দে কে   দায়িত্ব প্রদান করা হয় , পরিশেষে গঠন মূলক আলোচনা শেষে সভার কাজ শেষ করা হয়। পরবর্তী সভা আগামী ২৮ শে মে অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন নবগঠিত ইউনিয়ন সম্পাদক আব্দুল হাই লস্কর।